1. admin@kalomkantho.net : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০২:২৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আটঘরিয়ায় ইউপি নির্বাচনে নৌকাপ্রত্যাশী প্রবীণ রাজনীতিবিদ মহসিন মোল্লা ঝিকরগাছা উপজেলায় নৌকা পেল যারা শেখ রাসেলের জন্মদিনে ঢাকা মহানগর বঙ্গবন্ধু পরিষদের নানা কর্মসূচি ঝিকরগাছায় ৭৫ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি শুরু ঝিকরগাছা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শামীম রেজা সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ঝিকরগাছার গরিবের ডাক্তার হাবিবুরের মৃত্যু, সাবেক এমপি মনিরের শোক ঝিকরগাছা থানায় ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত ঝিকরগাছায় আ. লীগ নেতার মৃত্যু, স্বেচ্ছাসেবক লীগ আহ্বায়ক কালামের শোক যশোরে চাঁদাবাজির মামলায় ছাত্রলীগের সাবেক নেতা গ্রেফতার যুবলীগ থেকে ব্যারিস্টার সুমনকে অব্যাহতি

বর্ষা মৌসুমে যশোর পৌর এলাকায় পানি সঙ্কট

  • আপডেট টাইম বৃহস্পতিবার, ৮ জুলাই, ২০২১
  • ১০১ ভিউ টাইম

যশোর প্রতিনিধি :

বর্ষা মৌসুমে তীব্র পানি সংকটে পড়েছেন যশোর পৌর এলাকার মানুষ। চাহিদা অনুযায়ী পানি পাচ্ছেন না পৌরবাসী। প্রতিদিন বিকাল পাঁচটার পর পানি পাওয়া যাচ্ছে না। খরা মৌসুম এলেই নামতে শুরু করে ভূগর্ভস্থ পানির স্তর। ফলে প্রতি বছরই দেখা দেয় পানির জন্য হাহাকার। বর্ষা ও করোনার এই মহামারির ভেতর পানির সঙ্কট যেন মরার ওপর খাড়ার ঘা হয়ে দাঁড়িয়েছে যশোরবাসীর কাছে। পৌরবাসীর অভিযোগ, সাপ্লাইয়ের পানির এ সমস্যা চলে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। সংশ্লিষ্ট দপ্তরে বারবার জানালেও কোনও সমাধান মেলেনি। বর্তমান মেয়রও এ সমস্যার সমাধানের কোন উদ্যোগ নেননি। পৌর কর্তৃপক্ষ বলছেন, দীর্ঘদিনের পাম্প। জরাজীর্ণ পাম্পের কারণে পানি সরবরাহ করা যাচ্ছে না। এ সমস্যা কবে সমাধান হবে তাও বলতে পারছেন না তারা। তবে আরো বলছেন, ঠিকমত পানি উঠছে না।

এদিকে, পানি না পাওয়ায় মানুষ মাগরিবের নামাজসহ নিত্যা দিনের প্রয়োজনীয় অনেক কাজ করতে পারছেন না।
পৌরবাসী বলছে, শুষ্ক মৌসুমে যশোর পৌরসভাসহ আশপাশের এলাকায় এমনিতেই পানির সংকট থাকে। কিন্তু এখন বর্ষা মৌসুম। এসময় পানি না পাওয়া যেন মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা হয়ে দেখা দিয়েছে। প্রতিদিন বিকাল পাঁচটার পর পানি জন্য পৌরসভার লাইন আর পানি পাওয়া যায় না। এতে করে মাগরিবের নামাজ আদায়কারী মুসল্লিরা পড়েছে সবচেয়ে বড় সমস্যা। পানির অভাবে অনেকে ওজু করতে পারছে না। যে করণে অনেকেরই নামাজ আদায় বন্ধ হয়ে গেছে।
মুসল্লিদের অভিযোগ পানির জন্য পৌর মেয়রসহ সংশ্লিষ্টদের ফোন করা হলেও তারা কেউই ফোন রিসিভ করেন না। এমনকি মেয়র সাহেবকে পাওয়া দুস্কর হয়ে পড়েছে।
শহরের পাঁচ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আব্দুল জলিল বলেন, পানি হচ্ছে মানুষের জীবন। সব সময়ই পানির প্রয়োজন হয়। কিন্তু পৌরসভা পানি সরবরাহ করছে না। সন্ধ্যায় মাগরিবে নামাজ অনেকেরই বন্ধ হয়ে গেছে। কারো কাছে অভিযোগ করার জায়গা নেই।
পানির কষ্টে জীবন-যাপন করছে পৌরবাসী।
শহরের এক নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আব্দার রহমান নামে এক পৌরবাসী জানান, পানির খুব কষ্ট। যারা বাসা-বাড়িতে ভাড়া থাকে তারা অনেকেই পৌরসভার সাপ্লাই পানির ওপর নিভর। এই পানিতেই তাদের গোসল, রান্নাবান্না চলে। কিন্তু পৌরসভা ঠিকমত পানি দিচ্ছে না। যে কারণে পানি সঙ্কট মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। এ পানির সমস্যা সমাধানে যেন কেউই নেই।
যশোর পৌরসভার সচিব আজমল হোসেন বলেন, প্রতিদিন সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত পানি সরবরাহ করা হয়। একটানা পাম্প চলে। মেশিন বেশি সময় চললে তারও রেস্ট প্রয়োজন। আমরা বিকাল ৫টা পর্যন্ত পানি সরবরাহ করছি। আগে সন্ধ্যা পর্যন্ত পানি সরবরাহ করা হতো এখন সেটা সম্ভব হচ্ছে না। পৌরবাসী আমাদের ৫টা পর্যন্ত পানি সরবরাহ করতে বলেছে। আমরা সেই ভাবে পানি সরবরাহর সময় ঠিক করেছি।
এ বিষয়ে যশোর পৌরসভার মেয়র হায়দার গণি খান পলাশের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, পানির পাম্পগুলো দির্ঘদিনের পুরাতন। এসব মেশিনে ঠিকমত পানি সরবরাহ করা সম্ভব না। এ কারণে ঠিকমত পানি দেওয়া যাচ্ছে না। মেশিন ঠিক হলে পানি সরবরাহ করা হবে।

সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর
' অনুমতি ব্যতিত কপিরাইট দণ্ডনীয় অপরাধ'
Theme Customized By kalomkantho.net