1. admin@kalomkantho.net : admin :
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১১:৫৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আটঘরিয়ায় ইউপি নির্বাচনে নৌকাপ্রত্যাশী প্রবীণ রাজনীতিবিদ মহসিন মোল্লা ঝিকরগাছা উপজেলায় নৌকা পেল যারা শেখ রাসেলের জন্মদিনে ঢাকা মহানগর বঙ্গবন্ধু পরিষদের নানা কর্মসূচি ঝিকরগাছায় ৭৫ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি শুরু ঝিকরগাছা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শামীম রেজা সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ঝিকরগাছার গরিবের ডাক্তার হাবিবুরের মৃত্যু, সাবেক এমপি মনিরের শোক ঝিকরগাছা থানায় ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত ঝিকরগাছায় আ. লীগ নেতার মৃত্যু, স্বেচ্ছাসেবক লীগ আহ্বায়ক কালামের শোক যশোরে চাঁদাবাজির মামলায় ছাত্রলীগের সাবেক নেতা গ্রেফতার যুবলীগ থেকে ব্যারিস্টার সুমনকে অব্যাহতি

যশোরে নেশাগ্রস্থ ছেলের হাতে খুন হলেন পিতা

  • আপডেট টাইম সোমবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৫৭ ভিউ টাইম

নিজস্ব প্রতিবেদক:

যশোরে নেশাগ্রস্ত ছেলের হাতে প্রাণ দিলেন পিতা বিল্লাল হোসেন (৪৫)। গত ২৪ ডিসেম্বর রাতে সদর উপজেলার গাইদগাছি গ্রামের মধ্যপাড়ায় এই ঘটনার পর রোববার দুপুরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। নিহত বিল্লাল হোসেন একই গ্রামের মাহমুদুল্লা ভুইয়ার ছেলে।
গাইদগাছি গ্রামের ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম বলেছেন, নিহত বিল্লাল হোসেনের ছেলে মানিক হোসেন ভুইয়া (২২) অভয়নগরের নওয়াপাড়া বন্দরে শ্রমিকের কাজ করেন। কিছুদিন আগে বিল্লাল হোসেনের কাছ থেকে তার ছেলে মানিক এক হাজার টাকা ধার নিয়েছিল। গত ২৪ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ছেলের কাছে ওই টাকা ফেরৎ চান বিল্লাল হোসেন। কিন্তু ছেলে মানিক নেশাগ্রস্ত থাকায় নিয়মিত কাজে যায় না। ফলে বর্তমানে তার টাকার সংকট হয়েছে। তার পিতা টাকা ফেরৎ চাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয় মানিক। পিতা-পুত্রের মধ্যে বাকবিত-া হয়। এক পর্যায়ে মানিক পিতাকে খুন করার জন্য সুযোগ খুঁজতে থাকে। রাত সাড়ে ১০টার দিকে বাইরে থেকে বাড়ি আসছিলেন বিল্লাল হোসেন। এসময় ঘরের আড়ালে থেকে মানিক পিছন দিক থেকে বিল্লালকে ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এসময় বিল্লাল মাটিতে পড়ে যায়। তার চিৎকারে বাড়ি থেকে অন্য লোকজন এসে প্রথমে অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং অবস্থার অবনতি হলে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মারা যান।

এই ব্যাপারে বসুন্দিয়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই জাকির হোসেন বলেছেন, ছেলের আঘাতে আহত অবস্থায় বিল্লাল হোসেন খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। সেখানেই ময়নাতদন্ত শেষে রোববার রাতে বাড়িতে আনা হয়েছে তার লাশ। আর এইদিনই পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেছেন, পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় কোন অভিযোগ না দেয়ায় মামলা রেকর্ড করা হয়নি। অভিযুক্ত ছেলে মানিককে আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
কলমকণ্ঠ/আইআর

সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর
' অনুমতি ব্যতিত কপিরাইট দণ্ডনীয় অপরাধ'
Theme Customized By kalomkantho.net