1. admin@kalomkantho.net : admin :
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১১:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আটঘরিয়ায় ইউপি নির্বাচনে নৌকাপ্রত্যাশী প্রবীণ রাজনীতিবিদ মহসিন মোল্লা ঝিকরগাছা উপজেলায় নৌকা পেল যারা শেখ রাসেলের জন্মদিনে ঢাকা মহানগর বঙ্গবন্ধু পরিষদের নানা কর্মসূচি ঝিকরগাছায় ৭৫ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি শুরু ঝিকরগাছা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শামীম রেজা সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ঝিকরগাছার গরিবের ডাক্তার হাবিবুরের মৃত্যু, সাবেক এমপি মনিরের শোক ঝিকরগাছা থানায় ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত ঝিকরগাছায় আ. লীগ নেতার মৃত্যু, স্বেচ্ছাসেবক লীগ আহ্বায়ক কালামের শোক যশোরে চাঁদাবাজির মামলায় ছাত্রলীগের সাবেক নেতা গ্রেফতার যুবলীগ থেকে ব্যারিস্টার সুমনকে অব্যাহতি

বর্জ্য সংগ্রহে উচ্চবিত্তরা ১০০ টাকা, নিম্নবিত্তরা ৫০

  • আপডেট টাইম বুধবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৬৮ ভিউ টাইম

কলমকণ্ঠ ডেস্ক:

উচ্চবিত্তরা দেবেন ১০০ টাকা আর মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্তরা দেবেন ৫০ টাকা—মাসে এমন ফি নির্ধারণ করে বাড়ি থেকে বর্জ্য সংগ্রহের নতুন ব্যবস্থাপনার কথা ভাবছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। নতুন নিয়মে একটি ওয়ার্ডে একটি প্রতিষ্ঠানকে দিয়েই এ কাজ করার কথা ভাবা হচ্ছে। বর্তমানে একটি ওয়ার্ডে একাধিক প্রতিষ্ঠান বর্জ্য সংগ্রহের কাজ করছে। ফি নিচ্ছে ইচ্ছেমতো।

ডিএনসিসির সর্বোচ্চ ফোরাম বোর্ড সভায় গত সোমবার এ বিষয়ে প্রস্তাব অনুমোদিত হয়েছে। ডিএনসিসির মেয়র আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে মিরপুর ১০ নম্বর ওয়ার্ড কমিউনিটি সেন্টারে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শিগগিরই নতুন ব্যবস্থাপনায় বর্জ্য সংগ্রহের কাজ চালু হবে বলে জানিয়েছে সভা সূত্র।

সভা সূত্রে জানা যায়, বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় অরাজকতা ঠেকানোর পাশাপাশি শৃঙ্খলা ফেরাতে নতুন ব্যবস্থাপনায় কার্যকরের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ জন্য এলাকাভেদে ফি নির্ধারণ করে দেওয়া হবে। এ ক্ষেত্রে যে এলাকায় তুলনামূলক উচ্চবিত্তদের বসবাস, সেখানে মাসে ১০০ টাকা এবং তুলনামূলক অনুন্নত এলাকায় ৫০ টাকা করে নেওয়ার প্রস্তাব বোর্ড সভায় অনুমোদিত হয়েছে। এ ছাড়া যাঁরা বর্জ্য সংগ্রহের কাজ করবেন, তাঁদের আলাদা পোশাক পরিধান করা, হ্যান্ড গ্লাভস পরা, নির্ধারিত ফির বেশি না নেওয়াসহ বেশ কয়েকটি কঠোর নির্দেশনা থাকবে। বর্জ্য সংগ্রহকারী প্রতিষ্ঠানের কাজে বাসিন্দারা এবং করপোরেশন সন্তুষ্ট কি না, এটা নিয়েও বার্ষিক মূল্যায়ন করা হবে। নতুন নিয়মে বেলা ১১টা থেকে বিকেল ৪টার মধ্যেই পরিবেশসম্মতভাবে বাসাবাড়ি থেকে বর্জ্য সংগ্রহ করতে হবে। বর্জ্য সংগ্রহের পর করপোরেশনের নির্ধারিত স্থানে এসব ফেলতে হবে। বর্জ্য সংগ্রহের ক্ষেত্রে অভিযোগ পাওয়া গেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বোর্ড সভা সূত্র বলছে, প্রতিযোগিতার মাধ্যমে যে প্রতিষ্ঠান কাজ পাবে, টানা তিন বছর একটি ওয়ার্ডে এই কাজ করবে। এ ক্ষেত্রে বর্জ্য সংগ্রহকারী প্রতিষ্ঠানকে করপোরেশন নির্ধারিত ফি জামানত (ফেরতযোগ্য) হিসেবে রাখতে হবে। এই টাকার পরিমাণ এখনো ঠিক হয়নি।

ডিএনসিসি এলাকায় ৫৪টি ওয়ার্ড রয়েছে। বর্জ্য সংগ্রহের কাজটি বর্তমানে বেসরকারিভাবে বর্জ্য সংগ্রহকারী প্রতিষ্ঠানগুলো (পিডব্লিউসিএসপি) করছে। যারা কেবল করপোরেশন থেকে নিবন্ধন নিয়ে এ কাজ করছে। বর্জ্য সংগ্রহের ক্ষেত্রে ফি নির্ধারণ করে না দেওয়ার কারণে ইচ্ছেমতো ফি আদায় করছে এসব প্রতিষ্ঠান।
বোর্ড সভায় বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় নতুন প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়েছে বলে কলম কণ্ঠকে নিশ্চিত করেছেন মেয়র আতিকুল ইসলাম। আজ মঙ্গলবার রাতে তিনি বলেন, ‘পরীক্ষামূলকভাবে তাঁরা নতুন ব্যবস্থাপনার বর্জ্য সংগ্রহের কাজ চালু করে এর ফল দেখবেন। ফল ইতিবাচক হলে পর্যায়ক্রমে সব ওয়ার্ডে এটি বাস্তবায়ন করা হবে।’ অনুমোদন করা প্রস্তাবে কিছু সংশোধনী থাকবে জানিয়ে মেয়র বলেন, তিনি এই বিষয়টাকে একটা ব্যবস্থাপনার মধ্যে আনতে চাচ্ছেন। বর্তমানে বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় শৃঙ্খলা না থাকা এবং ইচ্ছেমতো ফি আদায়ের বিষয়টি স্বীকার করেন তিনি।

অন্যদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস দায়িত্ব নেওয়ার পর একটি ওয়ার্ডে একটি প্রতিষ্ঠানকে দিয়ে বর্জ্য সংগ্রহের কাজ চালু করা হয়েছে। ওয়ার্ডভিত্তিক যেসব প্রতিষ্ঠান এই কাজ নিয়েছে, তাদের এক বছরের জন্য করপোরেশনের রাজস্ব খাতে অফেরতযোগ্য ১২ লাখ টাকা করে জমা দিতে হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানকে দোকানপ্রতি ৩০ টাকা এবং বাসাবাড়ি থেকে ১০০ টাকা করে নেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বেশির ভাগ এলাকায় প্রতিষ্ঠানগুলো ইচ্ছেমতো টাকা নিচ্ছে বলে অভিযোগ আছে।

কলমকণ্ঠ / আইআর

সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর
' অনুমতি ব্যতিত কপিরাইট দণ্ডনীয় অপরাধ'
Theme Customized By kalomkantho.net