1. admin@kalomkantho.net : admin :
সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৮:০১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আটঘরিয়ায় ইউপি নির্বাচনে নৌকাপ্রত্যাশী প্রবীণ রাজনীতিবিদ মহসিন মোল্লা ঝিকরগাছা উপজেলায় নৌকা পেল যারা শেখ রাসেলের জন্মদিনে ঢাকা মহানগর বঙ্গবন্ধু পরিষদের নানা কর্মসূচি ঝিকরগাছায় ৭৫ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি শুরু ঝিকরগাছা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শামীম রেজা সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ঝিকরগাছার গরিবের ডাক্তার হাবিবুরের মৃত্যু, সাবেক এমপি মনিরের শোক ঝিকরগাছা থানায় ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত ঝিকরগাছায় আ. লীগ নেতার মৃত্যু, স্বেচ্ছাসেবক লীগ আহ্বায়ক কালামের শোক যশোরে চাঁদাবাজির মামলায় ছাত্রলীগের সাবেক নেতা গ্রেফতার যুবলীগ থেকে ব্যারিস্টার সুমনকে অব্যাহতি

পাঁচ মণ ভেজাল মধু ও উপকরণসহ অভয়নগরে আটক ৩

  • আপডেট টাইম বুধবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৬০ ভিউ টাইম

নিজস্ব প্রতিবেদক :

যশোরের অভয়নগরে ভেজাল মধু তৈরির কারখানার সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। ওই কারখানায় অভিযান চালিয়ে পাঁচ মণ ভেজাল মধু ও মধু তৈরির উপকরণ উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় দুই কারখানার মালিকসহ তিনজনকে আটক করা হয়। বুধবার দুপুরে উপজেলার প্রেমবাগ ইউনিয়নের জিয়াডাঙ্গা গ্রামে এ অভিযান পরিচালনা করে পুলিশ।

আটক তিনজন হলেন, জিয়াডাঙ্গা গ্রামের মৃত ইয়াকুব্বার সরদারের ছেলে কারখানা মালিক জাহাঙ্গীর আলম (৩৫), একই গ্রামের আবুল সরদারের ছেলে কারখানা মালিক রেজাউল ইসলাম (৩৪) ও তাদের সহযোগী প্রেমবাগ ইউনিয়নের গাবখালী গ্রামের হাসান আলীর ছেলে শহিদুল ইসলাম (২১)।

জিয়াডাঙ্গা গ্রামবাসী জানায়, জিয়াডাঙ্গা গ্রামে জাহাঙ্গীর ও রেজাউল দীর্ঘদিন ধরে নিজ বাড়িতে ভেজাল মধু তৈরি করে আসছে। বিষয়টি গ্রামবাসী ইউপি চেয়ারম্যান মফিজ উদ্দিনকে অবহিত করে। বুধবার ভেজাল মধু নিয়ে বাজারে যাওয়ার পর সময় ইউনিয়নের মাগুরা বাজারে স্থানীয় বাজার কমিটির নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে চেয়ারম্যান ওই মধু আটক করেন। পরে অভয়নগর থানা পুলিশকে খবর দিয়ে তাদের হাতে তুলে দেয়া হয়। পরে পুলিশ তাদের মধু তৈরির কারখানায় অভিযান চালায়।

ইউপি চেয়ারম্যান মফিজ উদ্দিন জানান, জিয়াডাঙ্গা গ্রামের একটি চক্র দীর্ঘদিন ধরে ভেজাল মধু তৈরি করে দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করে আসছে। স্থানীয় মাগুরা বাজার কমিটির সহযোগিতায় ভেজাল মধুসহ তিনজনকে আটক করা সম্ভব হয়। পরে তাদেরকে থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

এ ব্যাপারে অভয়নগর থানার এসআই গৌতম কুমার মণ্ডল বলেন, উপজেলা প্রেমবাগ ইউনিয়নের জিয়াডাঙ্গা গ্রাম থেকে ভেজাল মধু তৈরির কাজে জড়িত তিনজনকে আটক করা হয়েছে। আটক জাহাঙ্গীর আলমের স্বীকারোক্তিতে তার বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় তার বাড়িতে মধু তৈরি কারখানার সন্ধান মেলে। উদ্ধার করা হয় প্রায় সাড়ে চার মণ তৈরি ভেজাল মধু, একটি ডিজিটাল স্কেল, মধু তৈরির উপকরণ হিসেবে চিনি, চিনির পাঁচটি খালি বস্তা, ফিটকিরি, পানি ও নষ্ট মৌচাক। দুপুরে রেজাউল ইসলামের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা হয় প্রায় আধামণ ভেজাল মধু। ভেজাল মধু ও জব্দকৃত মালামালসহ তিনজকে থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে। তিনজনের বিরুদ্ধে থানায় রেগুলার মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে।

আটক জাহাঙ্গীর আলম জানান, মাগুরা বাজারে ধরা পড়া ৯৫ কেজি মধু কুমিল্লা জেলায় পাঠানো হচ্ছিল। নিজ বাড়িতে কয়েক বছর হয় মধু তৈরির ব্যবসা করছেন বলে জানান। মধু তৈরির প্রক্রিয়া সম্পর্কে বলেন, চিনি, ফিটকারি, পানি ও নষ্ট মৌচাকের মিশ্রণের পর তা আগুনে জ্বালানো হয়। এরপর তৈরি হয় মধু। এক কেজি মধু তৈরিতে খরচ হয় প্রায় একশত টাকা। তৈরিকৃত মধু প্রতি কেজি পাইকারি বিক্রি করা হয় দুই থেকে তিনশত টাকা।

কলমকণ্ঠ/আইআর

সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর
' অনুমতি ব্যতিত কপিরাইট দণ্ডনীয় অপরাধ'
Theme Customized By kalomkantho.net